খেলাধুলা

বিশ্বকাপের আগে আইসিসি থেকে সুখবর পেল সাকিব

গত বিশ্বকাপের আসর বসেছিলো ২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে, এবারের আসর বসবে ক্রিকেটের তীর্থভূমি ইংল্যান্ডে এ বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালে। মাঝখান কেটে গেছে চার বছর। পরিসংখ্যান বলছে, গত বিশ্বকাপের শুরু থেকে সদ্য সমাপ্ত আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল পর্যন্ত এই চার বছরে বাংলাদেশের সেরা বোলার সাকিব আল হাসান।

এছাড়া এই সময়ের মধ্যে বিশ্বে ১৮তম স্থানে আছেন তিনি।সাকিব গত চার বছরে দেশের জার্সি গায়ে মাঠে নেমেছেন ১১২ ম্যাচে। এই ১১২ ম্যাচ আর ১২২ ইনিংসে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের উইকেট সংখ্যা ১৭৬ টি। এর মধ্যে ইনিংস ছয়বার ৫ উইকেট ।

সাকিব সবচেয়ে বেশি উইকেট পেয়েছেন ওয়ানডেতে। এই ফরমেটে ৫৫ ইনিংসে তার উইকেট সংখ্যা ৬৭ টি। বাঁহাতি এই স্পিনার ওভার প্রতি রান দিয়েছেন ৪.৮৭ গড়ে। টেস্টে ১৮ ম্যাচ আর ৩১ ইনিংসে সাকিবের উইকেট ৬৫ টি। এছাড়া টি-টোয়েন্টিতে ৩৭ ম্যাচে ৪৪ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

ছবিঃ সাকিব আল হাসান

গত চার বছরে উইকেট শিকারের দিক থেকে সাকিবের পরেই আছেন ‘কাটারমাস্টার’ খ্যাত বোলার মোস্তাফিজুর রহমান। মোস্তাফিজের ক্যারিয়ারই অবশ্য শুরু হয়েছে ২০১৫ সালের পর। এক বিশ্বকাপ থেকে অন্য বিশ্বকাপ পর্যন্ত উইকেট শিকারির তালিকায় বাংলাদেশে দ্বিতীয়তে থাকা বাঁহাতি এই পেসারের উইকেট সংখ্যা ১৫৯ টি।

৮৯ ম্যাচ আর ৯৬ ইনিংসে ওভার প্রতি ৪.৬২ গড়ে রান দিয়ে ১৫৯ উইকেট নেন মোস্তাফিজ। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অবশ্য সবচেয়ে বেশি উইকেট মোস্তাফিজেরই। এই সময়ে দেশের হয়ে ৪৫ টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে সর্ব্বোচ্চ ৮৩ উইকেট নিয়েছেন। টেস্টে ১৩ ম্যাচে ২৮ টি ও টি-টোয়েন্টিতে ৩০ ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে সর্ব্বোচ্চ ৪৮ উইকেট তার।