খেলাধুলা

এইমাএ পাওয়াঃ অবসরে যাচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ!

দীর্ঘদিন ধরে ইনজুরি নিয়ে খেলছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বিশ্বকাপে খেলেছেন সবশেষ শ্রীলঙ্কা সিরিজে খেলেছেন ইনজুরি নিয়ে। তবে এবার শল্য চিকিৎসকের ছুরির নিছে যেতে হচ্ছে মাহমুদউল্লাহকে। সেটা সাড়তেলাগবে কমপক্ষে এক বছর। সেক্ষেত্রে ৩৪ বছর বয়সে আবার দলে ফেরা কঠিনই হবে তার জন্য।

কাধেঁর ইনজুরিতে ভুগছেন দীর্ঘদিন ধরে। বিশ্বকাপে বল হাতেও তাকে দেখা যায়নি। লঙ্কানদের বিপক্ষে সিরিজেও বাজে পারফরম্যান্সে ছিলেন তিনি। এই সিরিজের জন্য মাহমুদউল্লাহকে স্থায়ী চিকিৎসা করানো হয়নি।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘‘বিশ্বকাপ শেষে শ্রীলঙ্কা সিরিজ শুরু হওয়ায় আমরা বিষয়টি নিয়ে বসতে পারিনি। সিরিজ শেষে দীর্ঘ মেয়াদে পরিকল্পনা করতে পারি। তবে তার আগে মাহমুদউল্লাহ ও টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে আলোচনা করে করতে হবে। কেননা যদি আমরা অপারেশন করি তাহলে পরিপূর্ণ সুস্থ হতে মাহমুদউল্লাহর লম্বা সময় লাগবে। আমরা দেখেছি এই ক্ষেত্রে অপারেশনের পরে সুস্থ হয়ে ফিরে আসতে ৮ মাস থেকে ১ বছর সময় লেগে যায়। ইনজেকশন একটা পদ্ধতি হতে পারে। কিন্তু ইনজেকশন শতভাগ পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার নিশ্চয়তা দেয় না। তাই সেটাও আলোচনার বিষয়।’

তার শরীরের বর্তমান অবস্থা বিবেচনায় ক্রিকেট খেলা নিয়ে দেবাশীষের মতামত হলো, ‘মাহমুদউল্লাহর বোলিং করার ব্যাপারে আমাদের মেডিকেল দিক থেকে কোনো নিষেধ নেই। সে যদি স্বাচ্ছন্দ বোধ করে বোলিং করতে পারে। কিন্তু আমার ধারণা সে স্বাচ্ছন্দ বোধ করছে না। আমরা ডায়াগনোসিস করে যেটা পেয়েছি, সেটার ম্যানেজমেন্ট তিন ধরণের। একটা পুরোপুরি কনজারভেটিভ (ব্যায়াম,ফিজিও থেরাপি), একটা হচ্ছে ইনজেকশন। আর অপরটি অপারেশন। কিন্তু অপরাশেন যেহেতু জটিল প্রক্রিয়া সেহেতু অপারেশনটা আমরা শেষ চিকিৎসা হিসেবে দেখব। আগে আমরা চেষ্টা করব কনজারভেটিভ ম্যানেজমেন্টে ঠিক করা যায় না।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy