জাতীয়

সন্তান জন্ম দেওয়ার আগেই ডেঙ্গু কেড়ে নিলো মালিহার প্রাণ!

গত কয়েকদিনে রাজধানীতে মহামারির রূপ নিয়েছে ডেঙ্গু। ছোট শিশু থেকে বৃদ্ধ অনেকেই আক্রান্ত হচ্ছেন ডেঙ্গু জ্বরে। সবার মধ্যে আতঙ্ক ডেঙ্গু নিয়ে।

ইতিপূর্বে দেশে বিভিন্ন সময় ডেঙ্গু রোগ দেখা গেলেও এবারের মতো ভয়াবহ ছিল না। এবার যেমন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তেমনি মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে। এবার সে খাতায় নাম লিখিয়েছেন মেঘনা নিট কম্পোজিটের ডিজাইনার মালিহা মাহফুজ অন্যা (২৭)।

মাত্র ১ বছর আগে বিয়ে করেছিলেন মালিহা। আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন তিনি। মাত্র আর দুই মাস পর তাদের ঘর আলো করে আসতো প্রথম সন্তান। তার আগেই সকল আশা, সুখের সকল স্বপ্ন ধূলিস্যাৎ হয়ে গেলো। ডেঙ্গু কেড়ে নিলো সম্ভাবনাময় এ প্রাণ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মালিহার মৃত্যু হয়েছে। গতরাতে (১ আগস্ট) তার মৃত্যু হয় বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, মালিহা মাহফুজ অন্যা বিজিএমইএ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাশন ও টেকনোলজি বিভাগ থেকে পড়াশোনা শেষ করে মেঘনা নিট কম্পোজিট নামে একটি প্রতিষ্ঠানে ডিজাইনার হিসেবে চাকরি করতেন। গতবছরের ২০ জুন তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন নাফিজ ইমতিয়াজের সঙ্গে। নাফিজ ইমতিয়াজ পেশায় একজন প্রকৌশলী। তারা উত্তরাতে বসবাস করতেন।

মালিহার স্বামী নাফিজ ইমতিয়াজের ফেসবুক পেজ থেকে দেখা যায়, জুলাই মাসের ১৩ তারিখে দুজনের ছবি দিয়ে একটি পোস্ট দেন তিনি। যাতে লেখা ‘ইটস এ বয়’। অর্থাৎ এবার একটি ছেলে আসছে তাদের ঘরে।

মালিহা মাহফুজের একজন সহপাঠী আব্দুল্লাহ আল কেমি জানান, মালিহার জ্বর অনুভূত হয় জুলাই মাসের ২১ তারিখে। ২২ তারিখে তাকে উত্তরার লুভানা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে পরীক্ষার পর ডেঙ্গু ধরা পড়লে সেখানে ভর্তি করা হয়। ২৩ তারিখে মালিহাকে আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু সেখানে মালিহার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকলে ২৫ তারিখে তাকে বিএসএমএমইউতে নেওয়া হয়। সেখানে নিবিড় পর্যবেক্ষণে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মালিহার মৃত্যু হয় গতরাতে।

মালিহা মাহফুজ মালিহার মৃত্যুর ব্যাপারটি তার পরিবার ও বন্ধু স্বজনদের কেউ মেনে নিতে পারছেন না! মালিহার মৃত্যুর সংবাদ শুনে অনেকেই বিষ্ময় প্রকাশ করে বলেছেন, ‘বিশ্বাস হচ্ছে না!’ কেউ কেউ ফেসবুকে লিখেছেন, ‘এমন প্রতিভাময়, সম্ভাবনাময় তাজা একটি প্রাণ এভাবে আমাদের হারাতে হবে ভাবতে পারছি না! মেনে নিতে পারছি না!’ আরেকজন লিখেছেন, ‘এবার মালিহা মাহফুজ মালিহা চলে গেলেন ডেংগুতে, খুব ভালো মানুষ ছিলেন তিনি! সন্তান সম্ভবা ছিলেন। আল্লাহ তাকে জান্নাত নসীব করুন, আমিন।’

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy