গ্রাম-গঞ্জ

মামাতো ভাইকে ভালোবেসে শেষ পর্যন্ত জীবন দিল জোরিনা!

রাজশাহীর মোহনপুরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন প্রেমিকা। গতকাল বুধবার রাত আটটার দিকে ওই ছাত্রী বিষপান করেন। পরে তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই মারা যান।

মৃত ওই ছাত্রীর নাম জোরিনা খাতুন (১৮)। তিনি উপজেলার হরিয়ারপুর গ্রামের ভোদলের মেয়ে ও বসন্ত কেদার মহাবিদ্যালয়ের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

ওই ছাত্রীর সঙ্গে তার মামাতো ভাইয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল কিন্তু মামাতো ভাই প্রেমিকা জোরিনাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন। এতে ক্ষোভে গতকাল রাতে মামাতো ভাইয়ের বাড়ি উপজেলার মাটিকাটা গ্রামে বিষপান করেন মেয়েটি। পরে পরিবারের লোকজন টের পেয়ে তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। কিন্তু রাতেই তিনি মারা যান।

মৃত জোরিনার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জানতে চাইলে মোহনপুর থানার ওসি মোস্তাক আহমেদ বলেন, ‘মামাতো-ফুফাতো ভাই-বোনের মধ্যে প্রেমেরর সম্পর্কের জের ধরে ওই ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। ঘটনার পর থেকে প্রেমিক পলাতক রয়েছে।’

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy