16.6 C
New York
May 25, 2020
ইসলাম

ইফতারের শরবত তৈরিতে দুটি বিষয় লক্ষ্য রাখা খুব জরুরি!

ইফতার মানেই বাহারি খাবার, আর রকমারি শরবত! সারাদিন রোজা রাখার পর শরবত না খেলে শরীরে শক্তি বা প্রশান্তি মেলে না। তাইতো ইফতারে শরবত থাকা চাই-ই-চাই।

তবে শুধু শরবত রাখলেই হবে না। খেয়াল রাখতে হবে আপনার তৈরি শরবত স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা উপকারী। সুস্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই অনেকে পুষ্টিকর ফল বা সবজি দিয়ে শরবত কিংবা স্মুদি তৈরি করেন। অনেকেই আবার কয়েক রকম ফল একসঙ্গে দিয়ে শরবত বা স্মুদি তৈরি করেন। তবে এক্ষেত্রে দুটি বিষয় লক্ষ্য না রাখলেই পড়তে পারেন পারে বিপদ। চলুন জেনে নেয়া যাক সেই বিষয় দুটি-

> অনেকেই ইফতারের অনেক সময় আগেই শরবত তৈরি করে রাখেন। আবার কেউ কেউ ঘণ্টাখানেক আগে তৈরি করেন। মনে রাখুন, কিছু পুষ্টি উপাদান আলো ও বাতাসের সংস্পর্শে এলে নষ্ট হয়ে যায়। সে জন্য স্মুদি বা জুস যেটিই পান করুন না কেন, তৈরি করার পর বেশি সময় বাইরে রাখা ঠিক  নয়। এক্ষেত্রে পান করার কিছু সময় আগে তৈরি করে নেয়া উত্তম।

> গাজর, বিট রুট ইত্যাদিতে স্টার্চ বেশি পরিমাণে থাকে। এর ফলে এগুলো অন্য ফল বা সবজির সঙ্গে সম্পূর্ণভাবে মিশে না। তাই একাধিক সবজি বা ফল মিশিয়ে জুস কিংবা স্মুদি তৈরির সময় অবশ্যই এই বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখুন।

Related posts

২০৩০ সালে রোজা হবে ৩৬ দিন!

আপনার যে একটি মহৎ গুণের কারণে আল্লাহর পক্ষ থেকে সুসংবাদ আসে

আক্রান্ত হয়েও এক ওয়াক্ত নামাজও বাদ দেননি তিনি