24 C
Bangladesh
December 2, 2022
খেলাধুলা

সেই ভারতের কাছে হেরেই বিদায় নিল টাইগার যুবারা।

২০২০ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ইতিহাস গড়েছিল টাইগার যুবারা। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে জিতেছিল শিরোপা। যেখানে ফাইনালে আকবর আলিদের প্রতিপক্ষ ছিল ভারত। এবার ফাইনাল নয়, কোয়ার্টার ফাইনালেই ছিল প্রতিপক্ষ ভারত। তবে হতশ্রী ব্যাটিং পারফরম্যান্সে এবার আর হারানো গেল না ভারতীয় যুবাদের।

অ্যান্টিগার কুলিজ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে শুরুর দিকে বোলারদের জন্য উইকেটে ছিল সাহায্য। বোলারদের সেই সুবিধা দিতে টস জিতে বোলিং নিতে ভুল করেননি ভারতীয় অধিনায়ক ইয়াশ ধুল।

নিজের প্রথম, ইনিংসের ২য় ওভারেই ধুলের মুখে হাসি ফোটান রবি কুমার। দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করেন মাহফিজুল ইসলাম রবিনকে। তবে সুইং করিয়ে বল করতে থাকা রবি এখানেই থেমে যাননি। নিজের ৩য় ওভারে ইফতেখার হোসেন ইফতি ও ৪র্থ ওভারে প্রান্তিক নওরোজ নাবিলকে সাজঘরের পথ দেখান রবি।

১৪ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে বসে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। ৪র্থ উইকেটে ভালো কিছুর আভাস দিলেও আইচ মোল্লা ও আরিফুল ইসলাম ২০ রানের বেশি যোগ করতে পারেননি। ভিকি অস্তোয়ালের প্রথম শিকার হয়ে ফেরেন আরিফুল। কোন রান যোগ না করেই অস্তোয়ালের ২য় শিকার মোহাম্মদ ফাহিম। ৩৭ রানেই নেই ৫ উইকেট।

সেখান থেকে আর বের হয়ে আসতে পারেনি বাংলাদেশ। আইচ মোল্লা ৭ম ব্যাটসম্যান হিসাবে যখন আউট হন (রান আউট) দলের রান তখন ৫৬। ১০০ রান যখন অনেক দূরের পথ মনে হচ্ছিল তখন ঠিক ৫০ রানের জুটি গড়েন এসএম মেহরব ও আশিকুর জামান। তবে এই দুইজনের বিদায়ের পর অলআউট হতে সময় নেয়নি বাংলাদেশ।

৩৭.১ ওভারে ১১১ রানেই গুটিয়ে যায় টাইগার যুবারা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩০ রান মেহেরবের। এছাড়া আইচ মোল্লা ১৭ ও আশিকুর জামান ১৬ রান করেন। ভারতের পক্ষে ৩ উইকেট রবি কুমারের, ২ টি শিকার করেন ভিকি অস্তোয়াল।

ছোট লক্ষ্য ডিফেন্ড করতে যেয়ে বল হাতে শুরুটা খারাপ করেনি বাংলাদেশ। ২য় ওভারেই তানজিম হাসান সাকিবের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেম হারনুর সিং। ব্যাটারদের একাধিকবার পরাস্তও করেন আশিকুর জামান ও তানজিম হাসান। তবে ছোট রান নিয়ে চাপ ধরে রাখা সম্ভব হয়নি।

আংক্রিশ রাঘুবানশি ও শেখ রশিদের ৭০ রানের জুটি ভাঙেন রিপন মন্ডল। দলকে জয়ের খুব কাছে নিয়ে যেয়ে ব্যক্তিগত ৪৪ রানে থামেন রাঘুবানশি। নিজের করা পরবর্তী বলেই শেখ রাশিদকে (২৬) উইকেটের পেছনে ফাহিমের ক্যাচ বানান রিপন মন্ডল।

পরবর্তী ওভারে সিদ্ধার্থ যাদবকে (৬) ফিরিয়ে ম্যাচে কিছুটা হলেও উত্তেজনা ফেরান রিপন। মাঝে এক ওভারে তানজিম হাসান সাকিব ১৪ রান হজম করলেও থামেননি রিপন। নিজের ৭ম ওভারের ১ম বলে শুন্য হাতে ফেরান রাজ বাওয়াকে।

রিপনের এমন স্পেল কেবল আক্ষেপই বাড়িয়েছে টাইগার যুবাদের শিবিরে। কৌশল তাম্বেকে নিয়ে বাকি পথ সহজেই পার করেছেন ইয়াশ ধুল। ১১৫ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে ভারত।

সেমিফাইনালে ভারতের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। অপর সেমিফাইনালে ইংল্যান্ড লড়বে আফগানিস্তানের বিপক্ষে।

আরো পড়ুন

আমরা ভালো ক্রিকেট খেলছি না, যে ম্যাচটা জিতেছি ঐটাও ভাগ্যক্রমে জিতেছি : তামিম ইকবল।

Shohag

বিশ্বকাপে আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে চাই: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

Shohag

আইপিএলের জন্য তাসকিনকে চেয়ে মাশরাফিকে ফোন করেছিলেন গৌতম গম্ভীর।

Shohag