24 C
Bangladesh
December 2, 2022
ফুটবল

পেলের যে ৭টি রেকর্ড ভাঙতে পারেনি কেউ।

বিশ্বকাপজয়ী সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হওয়া থেকে শুরু করে সেলেসাওদের হয়ে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক আন্তর্জাতিক গোল করাসহ বেশ কিছু দুর্দান্ত উচ্চতা অর্জন করেন পেলে। এই কিংবদন্তির বহু রেকর্ড এখনো কেউ ভাঙতে পারেননি। চলুন একনজরে দেখে নেওয়া যাক, ফুটবল সম্রাটের যে ৭টি রেকর্ড এখনো অক্ষত আছে।

সবচেয়ে কম বয়সে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ এবং জয়
সবচেয়ে কম বয়সী ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপ খেলেছেন পেলে। আর সেবারই প্রথমবার বিশ্বকাপ জেতে সেলেসাওরা। ১৯৫৮ সালে ব্রাজিলকে বিশ্বকাপ এনে দিতে সহযোগিতা করেছিলেন ১৭ বছর ২৪৯ দিন বয়সী পেলে। সুইডেনের সোলনায় রাসুন্দা স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের ৫-২ ব্যবধানে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ট্রফি ঘরে তুলেছিল ব্রাজিল। সেখানে জোড়া গোল করেছিলেন পেলে।

ব্রাজিলের হয়ে সর্বোচ্চ গোল
আন্তর্জাতিক ফুটবলে ব্রাজিলের হয়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা এই কিংবদন্তি ফরোয়ার্ড। ফিফা স্বীকৃত ৯২টি ম্যাচে ৭৭টি গোল করেছেন পেলে। পাঁচ দশক ধরে রেকর্ডটি পেলের পক্ষেই রয়েছে। তবে নেইমার শিগগিরই পেলের রেকর্ডে ভাগ বসাতে পারেন। পিএসজি তারকার বর্তমানে গোলসংখ্যা ৭১টি।

সর্বোচ্চ বিশ্বকাপজয়ী খেলোয়াড়
১৯৫৮, ১৯৬২ ও ১৯৭০ সালে তিনটি বিশ্বকাপ শিরোপা জিতেছেন পেলে। ব্রাজিল বা সারা বিশ্বের অন্য কোনো খেলোয়াড় কখনো তিনটি বিশ্বকাপজয়ী দলের অংশ হননি।

বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ অ্যাসিস্ট
বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি অ্যাসিস্ট দেওয়ার রেকর্ড পেলের। বিশ্বকাপের চারটি আসরে (১৯৫৮, ১৯৬২, ১৯৬৬ ও ১৯৭০) উপস্থিত থেকে ১০টি অ্যাসিস্ট করেন এই ব্রাজিলিয়ান। এর মধ্যে ১৯৭০ বিশ্বকাপেই করেন ৬টি অ্যাসিস্ট। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এক আসরে এটিই সর্বোচ্চ অ্যাসিস্টের রেকর্ড।

বিশ্বকাপে সবচেয়ে কম বয়সী গোলদাতা
বিশ্বকাপের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতা এই ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি। কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েলসের বিপক্ষে ফ্ল্যাগশিপ টুর্নামেন্টে তার প্রথম গোলটি করেন পেলে। ফুটবল সম্রাটের গোলে ভর করে সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয় ব্রাজিল।

বিশ্বকাপে সবচেয়ে কম বয়সী হ্যাটট্রিকম্যান
১৯৫৮ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পেলে আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার প্রথম হ্যাটট্রিক করেন। সেই ম্যাচে ফ্রান্সকে ৫-২ গোলে হারায় সেলেসাওরা। এর মধ্য দিয়ে ১৭ বছর ২৪৫ দিন বয়সে আন্তর্জাতিক হ্যাটট্রিক করার জন্য সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হয়ে ওঠেন পেলে।

একটি ক্যালেন্ডার বছরে সর্বাধিক গোলস্কোরার
একটি ক্যালেন্ডার বছরে সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড পেলের দখলে। ১৯৫৯ সালে সান্তোসের হয়ে ১২৭টি গোল করেন কিংবদন্তি ফুটবলার। এ তালিকায় পেলের পর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন লিওনেল মেসি। ২০১২ সালে ৯১টি গোল করেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার।

এত এত রেকর্ড করা ফুটবলের রাজা পেলে বর্তমানে খুব একটা ভালো নেই। কিংবদন্তি এই ফুটবলারের এখন বিছানায় শুয়ে-বসে দিন কাটে। কোলন টিউমারে আক্রান্ত পেলেকে প্রায়ই মাড়াতে হয় হাসপাতালের চৌকাঠ। ৮১ বছর বয়সী পেলের কোলনে টিউমার ধরা পড়ে ২০২১ সালে। সে বছরই সেপ্টেম্বরে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় ফুটবলের রাজাকে। ৪ সেপ্টেম্বর অপারেশনের মাধ্যমে তার টিউমারটি বাদ দেওয়া হয়। তারপর থেকে প্রতিমাসেই কেমোথেরাপি নিতে হচ্ছে তাকে।

কোলন টিউমার ছাড়াও পেলে ভুগছেন আরও অনেক স্বাস্থ্যসমস্যায়। ২০১৯ সালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে পেলের কিডনির পাথর অপসারণ করা হয়। গত জানুয়ারিতে পেলেকে নিয়ে দুঃসংবাদ জানিয়েছিল সংবাদমাধ্যম ইএসপিএন—‘তার যকৃতে টিউমার ধরা পড়েছে এবং ফুসফুসেও আরেকটি টিউমার বেড়ে উঠছে।’

বয়সের ভারে পেলে এখন আর একা চলতে পারেন না। হুইলচেয়ারের সাহায্য নিয়ে চলাফেরা করতে হয় তাকে। তবে পেলে মানসিকভাবে এখনো বেশ শক্ত আছেন।

আরো পড়ুন

আকাশের দিকে তাকিয়ে ‘হারানো’ সন্তানকে খুঁজলেন রোনালদো।

Shohag

দ্বিতীয় রাউন্ডে বাদ আর্জেন্টিনা, বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল

Shohag

ভিয়ারিয়ালকে হারিয়ে ফাইনালের পথে লিভারপুল ।

Shohag